যতদিন করোনা ঝুঁকি থাকবে, ততদিন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার সুযোগ নেই

যতদিন করোনা ঝুঁকি থাকবে, ততদিন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার সুযোগ নেই
ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক  © ফাইল ফটো

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক বলেছেন, শিক্ষার্থীরা হচ্ছে আমাদের ভবিষ্যৎ সম্পদ। তাদেরকে কোনোভাবেই স্বাস্থ্য ঝুঁকির মধ্যে ফেলা যাবে না। এ কারণে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো খোলার আগে ক্যাম্পাস এবং শিক্ষার সাথে সংশ্লিষ্ট যেসব প্রতিষ্ঠান আছে সেগুলো খোলার আগে আরেকটু সতর্ক হয়ে সিদ্ধান্ত নিতে হবে। করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি যতদিন উচ্চমাত্রায় থাকবে ততদিন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার কোনো সুযোগ নেই।

শুক্রবার (২৫ সেপ্টেম্বর) করোনার মধ্যে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার বিষয়ে জানতে চাইলে দ্যা ডেইলি ক্যাম্পাসকে এসব কথা বলেন তিনি।

তিনি বলেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার ক্ষেত্রে শুধু নিজেদের দেশের সার্বিক অবস্থা নয় বরং আশেপাশের দেশগুলোর অবস্থার দিকেও নজর দিতে হবে। বিশেষ করে যেসব দেশে সংক্রমণের মাত্রা অনেক বেশি তারা কি সিদ্ধান্ত নিচ্ছে সেটাও দেখার দরকার আছে। করোনা পরিস্থিতি আমাদেরকে যে অবস্থায় নিয়ে এসেছে সেটি নিয়ে আমাদের নিজেদের অভিজ্ঞতাকে বিশ্ব অভিজ্ঞতার সাথে যুক্ত করে সমন্বিতভাবে সিদ্ধান্ত নিতে হবে।

তিনি আরও বলেন, করোনার দ্বিতীয় ঢেউ (সেকেন্ড ওয়েভ) নিয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যে সতর্কবাণী উচ্চারণ করেছে সেটাও তাৎপর্যপূর্ণ। কোনও সিদ্ধান্ত নেয়ার ক্ষেত্রে সেটিকেও আমাদের বিবেচনায় রাখতে হবে। কারণ শীত আসন্ন। শীতের সময় সর্দি, কাশি এগুলো আরও বেড়ে যায়। যদি সেগুলো বেড়ে যায় আর করোনার সংক্রমণও থাকে তাহলে পরিস্থিতিতে যে জটিলতার দিকে যাবে সেটি সহজেই বোঝা যায়।

প্রসঙ্গত, করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে গত ১৭ মার্চ থেকে বন্ধ রয়েছে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। কয়েক দফায় ছুটি বাড়িয়ে তা আগামী ৩ অক্টোবর পর্যন্ত বর্ধিত করা হয়েছে। তবে সংক্রমণের ঝুঁকি থেকে যাওয়ায় এই ছুটি আরও বাড়তে পারে বলে সংশ্লিষ্টরা আভাস দিয়েছেন।


মন্তব্য