রাবি ছাত্রদের ভাঙচুর: অনির্দিষ্টকালের কর্মবিরতিতে রামেকের ইন্টার্ন চিকিৎসকরা

রাবি ছাত্রদের ভাঙচুর: অনির্দিষ্টকালের কর্মবিরতিতে রামেকের ইন্টার্ন চিকিৎসকরা
  © সংগৃহীত

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থীর মৃত্যুর জেরে হাসপাতালে ভাঙচুর ও চিকিৎসকদের ওপর হামলার অভিযোগে অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘট ও কর্মবিরতি ঘোষণা দিয়েছেন রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের ইন্টার্ন চিকিৎসকরা। বুধবার রাত পৌনে ১১টায় এ ঘোষণা দেন তারা। ইন্টার্ন চিকিৎসক পরিষদের সভাপতি ইমরান হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, আমাদের চিকিৎসকরা সাধ্যমতো চিকিৎসা দিচ্ছিলেন। আইসিইউতে নেওয়ার ব্যবস্থা করেছিলেন। কিন্তু তার আগেই রোগীর মৃত্যু হয়। রোগীর অবস্থা খারাপ ছিল।

তিনি আরও বলেন, ওই শিক্ষার্থী মারা গেলে রাবি শিক্ষার্থীরা আমাদের ওপর হামলা করে এবং হাসপাতালে ভাঙচুর চালায়। এ ঘটনায় চিকিৎসকরা নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছে। এ অবস্থায় দায়িত্বপালন সম্ভব নয়। হামলার বিচার ও নিরাপত্তা নিশ্চিত না করা পর্যন্ত আমরা কাজে নামবো না।

এর আগে হলের বারান্দা থেকে নিচে পড়ে শাহরিয়ার নামের এক শিক্ষার্থী গুরুতর আহত হন। আজ বুধবার রাত ৮টার দিকে রাবির শহীদ হবিবুর রহমান হলের তৃতীয় ব্লকের তৃতীয় তলার বারান্দা থেকে পড়ে যান বলে জানান হলের শিক্ষার্থীরা। পরে তাঁকে গুরুতর আহত অবস্থায় রামেকে নেওয়ার পর সেখানে তিনি মারা যান।

নিহত শাহরিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের মার্কেটিং বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী। তাঁঁর গ্রামের বাড়ি দিনাজপুরের বিরল উপজেলায়।

এ ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা রামেক হাসপাতালে চিকিৎসায় অবহেলার অভিযোগ করেন। পরে ‍সেখানে উপস্থিত শিক্ষার্থীরা হাসপাতালে ভাঙচুর চালায়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র উপদেষ্টা তারেক নূর বলেন, আহত শিক্ষার্থীকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আনা হয়। সেখানেই তিনি মারা যান। তবে ওই শিক্ষার্থী ঠিক কিভাবে পড়ে যান তা জানাতে পারেননি ছাত্র উপদেষ্টা।


সর্বশেষ সংবাদ