সাম্প্রদায়িক হামলার প্রতিবাদে এবার রাজপথে মাদ্রাসার শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা

প্রতিবাদ
সাম্প্রদায়িক হামলার প্রতিবাদে এবার রাজপথে মাদ্রাসার শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা  © সংগৃহীত

সারাদেশে সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে চট্টগ্রামে এক কিলোমিটারজুড়ে মানববন্ধন করেছেন মাদ্রাসার শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা। এ মানববন্ধনে আরও যুক্ত হন নানা স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীরা। জাতীয় ঐক্য গড়ে তুলে সম্প্রীতির বাংলাদেশ গড়তে এমন আয়োজন বলে জানান আয়োজকরা।

রবিবার (২৪ অক্টোবর) সকালে চট্টগ্রাম নগরীর গনিবেকারি এলাকায় এক কিলোমিটার এলাকাজুড়ে সাম্প্রদায়িক হামলায় প্রতিবাদে মানববন্ধন করেন দারুল উলুম কামিল মাদ্রাসার শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। সম্প্রীতির বাংলাদেশের অনন্য দৃষ্টান্ত এ মানববন্ধন। যেখানে একই কাতারে মুসলিম, হিন্দু, বৌদ্ধ ও খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীরা। আছেন মাদ্রাসার শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরাও।

এ সময় মানববন্ধনকারীরা জানায়, যারা পূজামণ্ডপে হামলা করে তারা মুসলমান হতে পারে না। মানুষে মানুষে হানাহানি ইসলাম পছন্দ করে না। যারা এমন কর্মকাণ্ড করে তার সত্যিকার অর্থে ভালো মানুষ হতে পারে না। পরে সম্প্রতির মানববন্ধনে যুক্ত হয় কাজেম আলী স্কুল অ্যান্ড কলেজের হাজারো শিক্ষার্থী। অন্য ধর্মের ওপর সংঘাত ও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড স্বাধীনতাবিরোধী বলেও উল্লেখ করে তারা জানান, ইসলাম শান্তির ধর্ম ও সম্প্রীতির ধর্ম।

সিটি করপোরেশনের সাবেক প্রশাসক খোরশেদ আলম সুজন বলেন, সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা সৃষ্টি করে দেশকে অস্থিতিশীল করার পাঁয়তারা করছে একটি পক্ষ। তাদের সতর্ক করে সব ধর্মের মানুষকে নিয়ে জাতীয় ঐক্য গড়ে তুলতে এ মানববন্ধন।

দারুল উলুম কামিল মাদ্রাসা প্রিন্সিপাল মোহাম্মদ মহসিন ভূঁইয়া জনান, হিন্দু ধর্মাবলম্বীদর পাশে আমরা দাঁড়িয়েছি। কারণ ইসলাম সংঘাত পছন্দ করে না। হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের যেন রাজপথে আন্দোলন সংগ্রাম আর না করার আহ্বান জানান।

প্রসঙ্গত, গত ১৪ অক্টোবর নগরীর প্রধান পূজামণ্ডপ জেএমসেন হলে হামলা চালায় দুর্বৃত্তরা। এর সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগ ১০ জনকে আটকও করে পুলিশ


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ

x