অধ্যক্ষ মুফতি যুবায়েরের সন্ধান চায় তার পরিবার

সংবাদ সম্মেলন
জাতীয় প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন  © সংগৃহীত

‘নিখোঁজ’ মুফতি যুবায়ের আহমাদের সন্ধানের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছেন তার পরিবারের সদস্যরা। সোমবার (২০ সেপ্টেম্বর) জাতীয় প্রেসক্লাবে জহুর হোসেন চৌধুরী হলে সংবাদ সম্মেলনে মুফতি যুবায়েরের স্ত্রীসহ পরিবারের অন্য সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, দিনাজপুরের বাসিন্দা মুফতি যুবায়ের আহমাদ ঢাকার একটি মাদ্রাসার অধ্যক্ষ। তিনি নিজে উত্তরবঙ্গে বেশ কিছু মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠা করেছেন। করোনাকালে এসব মাদ্রাসা বন্ধ হওয়ার পর নতুন করে সেগুলো কীভাবে চালু করা যায় সে বিষয়ে আলোচনার জন্য এলাকায় গিয়েছিলেন তিনি।

পরিবারের পক্ষ থেকে বলা হয়, সেসব মাদ্রাসা পরিদর্শন শেষে গত ১৭ সেপ্টেম্বর বিকাল ৫টায় সৈয়দপুর বিমানবন্দর থেকে একটি ফ্লাইটে ঢাকায় এসে পৌঁছান। ঢাকায় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে নেমে তিনি তার স্ত্রীকে কল করে জানান যে, তার আসতে কিছুটা দেরি হতে পারে। এরপর থেকেই তার ফোন নম্বর বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে বলে অভিযোগ পরিবারের।

পরিবারের পক্ষ থেকে আরও জানানো হয়, তারা ইতিমধ্যে আইনশৃঙ্খলারক্ষাকারী বাহিনীর সহায়তা চেয়েছেন। তারা প্রথমে তুরাগ থানায় অভিযোগ করতে গেলে সেখান থেকে বিমানবন্দর থানায় পাঠানো হয়। বিমানবন্দর থানা থেকে বলা হয়, ২৪ ঘণ্টার আগে কোনও রিপোর্ট হবে না। ২৪ ঘণ্টা পর গেলে থানা থেকে জানানো হয়, ভালো করে খোঁজ করতে থাকেন।

পরিবারের দাবি, মুফতি যুবায়ের আহমাদ কোনও রাজনৈতিক দল, মত, বিশৃঙ্খলা বা রাষ্ট্রবিরোধী কাজের সাথে জড়িত নন। তার কোনও বক্তব্যে কিংবা লেখায় কোনও প্রকার উস্কানিমূলক, দেশ বা সরকার বিরোধী কোনও কিছু খুঁজে পাওয়া যাবে না।

এসব বিষয় উল্লেখ করে মুফতি যুবায়েরের স্ত্রী বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে আমি আকুল আবেদন জানাচ্ছি যে, তিনি যেন আমার নিরপরাধ স্বামীকে খুঁজে বের করতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে বিশেষ নির্দেশ দেন। আমরা পারিবারিকভাবে অনেক দুশ্চিন্তার মধ্যে আছি।


মন্তব্য