ঈদের পর সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে না দিলে বড় আন্দোলনের হুঁশিয়ারি

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান
ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের নায়েবে আমির মুফতি সৈয়দ মোহাম্মদ ফয়জুল করীম  © সংগৃহীত

আসন্ন ঈদুল আজহার পর দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে না দিলে বড় আন্দোলন গড়ে তোলার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের নায়েবে আমির মুফতি সৈয়দ মোহাম্মদ ফয়জুল করীম। আজ রবিবার (১৮ জুলাই) বিকেলে বরিশাল নগরীর চাঁদমারী এলাকায় দলটির কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে এই হুঁশিয়ারি দেন।

মুফতি ফয়জুল করিম বলেন, শিশুরা খেলার মাঠ, হাট-বাজার সর্বত্র যেতে পারলেও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নয় কেন? শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রেখে একটি মূর্খ জাতি সৃষ্টি করার দুরভিসন্ধি রয়েছে সরকারের। একটি মূর্খ জাতি সৃষ্টির চেয়ে করোনায় মৃত্যুবরণ শ্রেয়।

তিনি বলেন, মাদ্রাসা বন্ধ থাকায় সেখানে কোরআন তেলওয়াত ও দোয়া হচ্ছে না। আল্লাহ অসন্তুষ্ট হওয়ায় করোনার তৃতীয় ঢেউয়ে দেশে আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা বাড়ছে। গত কয়েক মাসে অনেক নিরীহ আলেম-ওলামাদের সরকার গ্রেফতার করে কারাবন্দি করেছে। তাদের নিঃশর্ত মুক্তি দাবী করেন তিনি।

স্বাস্থ্যখাতের অনিয়ম-দুর্নীতির সমালোচনা করে ফয়জুল করিম বলেন, হাসপাতালে রোগীরা বিনা চিকিৎসায় মারা যাচ্ছেন। গত বছর করোনা সংক্রমণ শুরুর পর ‘চরমোনাই ভলান্টিয়ার সার্ভিস টিম’ গঠন করে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের নেতাকর্মীরা আক্রান্তদের চিকিৎসা ও খাদ্য সহায়তা দিচ্ছে। চাহিদা অনুযায়ী রোগীদের বাড়িতে অক্সিজেন পৌঁছে দিচ্ছে। মৃতদের দাফন, এমনকি হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের সৎকারও করছে নেতাকর্মীরা।

মতবিনিময় সভায় ইসলামী আন্দোলনের নেতা সৈয়দ নাসির আহমেদ কাওছার, মাওলানা জাকারিয়া হামিদী, মাওলানা লুৎফর রহমান এবং আবদুল্লাহ আল মামুন টিটুসহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন।


মন্তব্য