কওমি মাদ্রাসা থেকে ইউএনও-ডিসি-সচিবও হতে পারেন: জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী

মাদরাসা
জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন  © ফাইল ছবি

জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন বলেন, প্রধানমন্ত্রী কওমি মাদরাসার শিক্ষাকে আধুনিকায়ন করেছেন। কওমি মাদরাসা থেকে পড়া লেখা করে যেন সম্মানজনক পেশাতে নিজেকে নিয়োজিত করতে পারে; এ জন্য কওমি শিক্ষার সঙ্গে আইসিটি, গণিত, ইংরেজি ও বিজ্ঞান শিক্ষাকে সম্পৃক্ত করা হয়েছে। যেন তারা চাকরির ক্ষেত্রেও সমান সুযোগ পায়। বিসিএস করে ইউএনও, ডিসি ও সচিব হতে পারেন।

সোমবার (৩ অক্টেবর) মেহেরপুর শিল্পকলা একাডেমিতে জেলা উলামা পরিষদ ও ইমাম পরিষদের উদ্যোগে সামাজিক সম্প্রীতি ও আদর্শ সমাজ গঠনে উলামাদের ভূমিকা শীর্ষক আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী।

তিনি বলেন, যারা ইসলামের জ্ঞান এবং ইসলামকে নিয়ে যত বেশি চর্চা করতে পেরেছেন তিনি ততবেশি নিজেকে এবং নিজের নফসকে নিয়ন্ত্রণ করতে পেরেছেন। ইসলামের জ্ঞান চর্চা আমাদের চিন্তা করতে শেখায়। একজন ভাল মানুষের প্রভাবে অনেকে ভাল হতে বাধ্য হয়।

জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন বলেন, গুজব মানুষের সব আমলকে ধ্বংশ করে দেই। তারা গুজবের কারণে মানুষকে হত্যা করে। তাই গুজব থেকে দুরে থাকতে হবে। মাদক আমাদের সন্তানদের একটা ভয়াবহ পরিস্থিতির দিকে নিয়ে যেতে পারে। মাদককে দমন করতে মসজিদ থেকে মাদকের বিরুদ্ধে প্রচারণা চালাতে হবে।

আলোচনা সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন ওলামা পরিষদের মেহেরপুর জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক মুফতি হাফিজুর রহমান।

মেহেরপুর জেলা উলামা পরিষদের সভাপতি মাওলানা শফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন- মেহেরপুর জেলা প্রশাসক ড. মোহাম্মদ মুনসুর আলম খান, মেহেরপুর পুলিশ সুপার রাফিউল আলম, সদর উপজেলা নির্বাহি অফিসার মো. ওবায়দুল্লাহ।

অন্যদের মধ্যে আরো বক্তব্য রাখেন, জাতীয় ইমাম সমিতির মেহেরপুর জেলা শাখার সভাপতি মাওলানা হাসানুজ্জামান, ওলামা পরিষদের মেহেরপুর জেলা শাখার সহ-সভাপতি অধ্যাপক মাওলানা খাদিমুল ইসলাম, ওলামা পরিষদের গাংনী উপজেলা শাখার সভাপতি মাওলানা জাফর আলী, মাওলানা মিনারুল ইসলাম, মাওলানা শফিকুল ইসলাম প্রমুখ।


x

সর্বশেষ সংবাদ