জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে আগে শিক্ষার্থী ভর্তির কারণ জানালেন উপাচার্য

উপাচার্য
অধ্যাপক মশিউর রহমান ও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় লোগো  © ফাইল ফটো

২০২১-২০২২ শিক্ষাবর্ষে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর ভর্তি পরীক্ষা শুরুর আগেই জাতীয় বিশ্ববিদ্যালেয়ের ক্লাস শুরু হয়ে যাচ্ছে। বিষয়টি নিয়ে শিক্ষার্থীদের মাঝে ক্ষোভ থাকলেও সেশনজট থেকে বাঁচতেই এটি করা হচ্ছে বলে জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

শিক্ষার্থীদের ক্ষোভের বিষয়টি নিয়ে যোগাযোগ করা হয় জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মশিউর রহমানের সাথে। বিষয়টি নিয়ে দ্যা ডেইলি ক্যাম্পাসের সাথে বিষদ আলোচনা করেছেন তিনি। নিচে অধ্যাপক মশিউর রহমানের সাক্ষাৎকারের চুম্বক অংশটুকু তুলে ধরা হলো-

দ্যা ডেইলি ক্যাম্পাস: পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষার আগে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্লাস শুরু হচ্ছে। বিষয়টি নিয়ে শিক্ষার্থীরা ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। এ বিষয়ে আপনার মন্তব্য কি?

অধ্যাপক মশিউর রহমান: দেখুন গত কয়েকবছর ধরেই জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় সবার আগে ভর্তি কার্যক্রম শেষ করছে। সেই ধারাবাহিকতা এবারও বজায় রয়েছে। এটি শিক্ষার্থীদের কথা বিবেচনা করেই করা হয়েছে। এখন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে কোন সেশনজট নেই। এটি সম্ভব হয়েছে দ্রুত শিক্ষার্থী ভর্তি করানোর কারণেই। করোনার কারণে শিক্ষার্থীরা এমনিতেই অনেক পিছিয়ে রয়েছে। এই অবস্থায় ক্লাস শুরু করতে দেরি হলে শিক্ষার্থীরা আরও পিছিয়ে যাবে। তাই ৩ জুলাই থেকে ক্লাস শুরুর সিদ্ধান্ত হয়েছে।

আরও পড়ুন: পাবলিকে পরীক্ষার আগেই জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্লাস শুরু

দ্যা ডেইলি ক্যাম্পাস: জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির পর কোনো শিক্ষার্থী পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে চান্স পেলে ভর্তি বাতিল করে চলে যায়। তখন আসন ফাঁকা থাকে। এতে রাষ্ট্রের অর্থ অপচয় হচ্ছে বলে অভিমত শিক্ষা সংশ্লিষ্টদের। এ বিষয়ে আপনার অভিমত কি?

অধ্যাপক মশিউর রহমান: জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির পর ভর্তি বাতিল করে অন্যত্র চলে যাওয়া শিক্ষার্থীদের সংখ্যা খুবই কম। আমাদের কাছে থাকা তথ্য অনুযায়ী জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়ার পর মাত্র দুই শতাংশ শিক্ষার্থী অন্যত্র চলে যায়। বাকি ৯৮ শতাংশই কোনো না কোনো ভাবে আমাদের সাথে যুক্ত থাকে। ফলে তেমন আসন ফাঁকা থাকছে না। এতে রাষ্ট্রেরও আর্থিক ক্ষতি খুব একটা হচ্ছে না।

দ্যা ডেইলি ক্যাম্পাস: আপনাকে ধন্যবাদ।
অধ্যাপক মশিউর রহমান: আপনাদেরও ধন্যবাদ।


x

সর্বশেষ সংবাদ