কম্পোজার রোজেনের আত্মহত্যা প্রতিরোধ এবং সংগীত ভাবনা

সংগীত
কম্পোজার রোজেন রহমান  © সংগৃহীত

কম্পোজার রোজেন রহমান, দুই যুগ ধরে কাজ করছেন সংগীত নিয়ে, কখনো কণ্ঠ দিয়ে, কখনো স্টেজে গিটার হাতে, কখনোবা পর্দার আড়ালে মিউজিক কম্পোজিশনে। কম্পোজিশন, গান লিখা এবং গান গাওয়ার সাথে সাথে একজন দক্ষ সুরকার হিসেবেও মানুষের মন জয় করতে সক্ষম হয়েছেন তিনি। বুধবার দ্যা ‍ডেইলি ক্যাম্পাস এর মুখোমুখি হন প্রতিভাবান এ আর্টিস্ট। কথা হয় জনজীবনে  সংগীতসহ  নানা বিষয়ে। 

 

দ্যা ‍ডেইলি ক্যাম্পাস: আসসালামু আলাইকুম। কেমন আছেন ?

রোজেন রহমান: ওয়ালাইকুমুস সালাম। আলহামদুলিল্লাহ। ভালো আছি। 

 

দ্যা ‍ডেইলি ক্যাম্পাস: সংগীতের সাথে আপনার সম্পর্কটা ঠিক কবে থেকে শুরু?

রোজেন রহমান: ক্লাস ফোর-ফাইভ থেকেই গান করছি, প্রফেশনালি মিউজিক করছি দুই যুগের বেশি সময় ধরে। 

 

দ্যা ‍ডেইলি ক্যাম্পাস: গানের জগতে আপনি বেশ অভিজ্ঞ। সে আলোকে আপনার কি অভিমত বাংলা গান নিয়ে? আধুনিক গান বর্তমানে কেমন সময় পার করছে ? 

রোজেন রহমান: বেশি ভালো সময় পার করছে- এমনটি বলবো না। গত ৭-৮ বছরে ম্যাসিভ হিট কিংবা কোন কালজয়ী গান সৃষ্টি হয়নি। কালজয়ী গান কি ? যে গান যুগের পর যুগ বেঁচে থাকে।  যেমন আজম খান ভাই, মনির খান, রুনা লায়লা, কনকচাপা আপা, আসিফ ভাই তারা প্রত্যেকেই দুই-একটা কালজয়ী উপহার দিয়েছেন - যেগুলো সাধারণত আমরা স্টেজে গেয়ে থেকে থাকি। 

 

দ্যা ‍ডেইলি ক্যাম্পাস: এখন কেন বাংলা কালজয়ী গান আসছে না ?

রোজেন রহমান: আসলে আমরা কোন ভালো গানকে প্রোমোট করতে পারছি না। গানটা হয়ে গেছে এখন ফ্রি একটা বিষয়। গান গাওয়া এখন যোগ্যতার ব্যাপার না। এখন যে কেউ ইচ্ছে করলে  গান করতে পারে। একটা গানের পিছনে বহু পরিশ্রম-সাধনা জড়িত থাকে, অর্থনৈতিক একটা ব্যাপার আছে।কিন্তু সেটা হচ্ছে না দেখে অনেকে গানে আগ্রহ হারিয়ে ফেলছেন। 

 

দ্যা ‍ডেইলি ক্যাম্পাস:  ইসলামি সংগীতের ভালো অবস্থানের কারণে বাংলা গানের বর্তমান অবস্থার কোন সম্পর্ক আছে বলে  মনে করেন?

রোজেন রহমান: এদেশে ইসলামী গান ভালো অবস্থানে আছে অনেকে মনে করলেও আমি  করি তেমনটি মনে করছি না। দেশের অধিকাংশ ইসলামী গান আন্তর্জাতিক মানের হচ্ছে না। দেশে যত্র-তত্র প্রচুর স্টুডিও গড়ে উঠলেও সেগুলোতে দক্ষ সাইন্ড ইন্জিনিয়ারের অভাব রয়েছে। 

  

দ্যা ‍ডেইলি ক্যাম্পাস: হিরো আলমের ব্যাপারে কি বলবেন?

রোজেন রহমান: অনেকে হিরো আলমের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেন যে, তিনি বাংলা গানকে ধ্বংস করছেন। আসলে তা নয়।আমি তাকে তার অবস্থানে সফল মনে করি। হিরো আলম নিজেকে শিল্পী মনে করেন না।তিনি নিজেই বলেছেন যে, আমি  বিনোদন দেওয়ার জন্য গান করি। মানুষও তার গান দেখে মজা পায়।

 

দ্যা ‍ডেইলি ক্যাম্পাস: আত্মহত্যা  প্রতিরোধে গান কি কোন ভুমিকা পালন করতে পারে?

রোজেন রহমান: হ্যাঁ, সংগীত মানুষের মাঝে আশা জাগায়। কিন্তু শুধু গান দিয়ে আত্মহত্যা প্রতিরোধ সম্ভব নয়। দেশের পাবলিক এবং বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরাও আত্মহত্যা করছে— এমন খবরও শুনতে পাই। এজন্য আত্মহত্যা থেকে যুবসমাজকে বাঁচাতে পারিবারিকভাবেই সন্তানদের মাঝে ধর্মীয় মূল্যবোধ শিক্ষা দিতে হবে, তাদের কে তাদের জীবনের লক্ষ্য এবং উদ্দেশ্য সম্পর্কে অবহিত করতে হবে ছোট বেলা থেকেই।  

 

দ্যা ‍ডেইলি ক্যাম্পাস: আপনার গুরুত্বপূর্ণ সময় আমাদের সাথে শেয়ার করার জন্য আপনাকেকে ধন্যবাদ। 

রোজেন রহমান: আপনাকেও ধন্যবাদ। 

 


মন্তব্য

x