এইচএসসি পরীক্ষা অক্টোবরে

এইচএসসি পরীক্ষার্থী
এইচএসসি পরীক্ষার্থী  © ফাইল ছবি

বন্যার কারণে এসএসসি পরীক্ষা পিছিয়ে যাওয়ায় আসন্ন এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষাও পিছিয়ে অক্টোবরে শুরুর প্রাথমিক সিদ্ধান্ত হয়েছে। পরিস্থিতি বিবেচনায় সবকিছু ঠিক থাকলে এই সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হবে। এইচএসসি পরীক্ষা শুরু হওয়ার সম্ভাব্য তারিখ ছিল আগস্টে। শিক্ষা বোর্ডগুলোর চেয়ারম্যানদের সংগঠন আন্তশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় সাবকমিটির সভায় প্রাথমিকভাবে এ সিদ্ধান্ত হয়েছে। 

শিক্ষা বোর্ডগুলোর সূত্র বলছে, এসএসসি পরীক্ষা যদি আগস্টের প্রথম সপ্তাহে শুরু করা যায়, তাহলে এইচএসসি পরীক্ষা অক্টোবর মাসের প্রথম সপ্তাহে শুরুর সম্ভাবনা আছে। কারণ, এই দুই পরীক্ষার মধ্যে দুই মাসের বিরতির দরকার হয়। এতে এসএসসি ও এইএসসির মাঝে দুই মাসের যে বিরতির প্রয়োজন, সেটি সম্ভব হবে।

চলতি বছরের এসএসসি ও এইচএসসির পূর্বের সম্ভাব্য তারিখ অনুযায়ী, এসএসসি পরীক্ষা হবে আগামী ১৯ জুন এবং এইচএসসি পরীক্ষা হবে ২২ আগস্ট। এবার পরীক্ষার্থীদের নির্বাচনী পরীক্ষা (টেস্ট) হবে না। তার বিকল্প হিসেবে প্রস্তুতিমূলক পরীক্ষা হবে। তবে পরিস্থিতি বিবেচনায় সম্ভাব্য তারিখের এসএসসি পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে।

আরও পড়ুন: আগস্টের মাঝামাঝি এসএসসি পরীক্ষা

এদিকে, চলতি বছরের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে আসছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। আগামী রবিবার (১৭ জুন) দুপুর একটায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে এটি অনুষ্ঠিত হবে।

ফের বাড়ল এইচএসসির ফরম পূরণের সময়

চলতি বছরের এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের ফরম পূরণের সময় আবারও বাড়ানো হয়েছে। নতুন সূচি অনুযায়ী ২৬ জুলাই পর্যন্ত ফরম পূরণ এবং ২৭ জুলাই পর্যন্ত ফি পরিশোধ করা যাবে। শিক্ষা বোর্ডের নির্দেশনায় বলা হয়েছে, ‘সোনালী সেবা’র মাধ্যমে ফি দেওয়ার সময় ২৭ জুলাই পর্যন্ত পুনর্নির্ধারণ করা হলো।

এইচএসসির নম্বর বণ্টন যেভাবে

চলতি বছরের উচ্চ মাধ্যমিক সার্টিফিকেট (এইচএসসি) পরীক্ষায় বিজ্ঞান বিভাগে ব্যাবহারিকসহ বিষয়গুলোতে পরীক্ষার্থীরা প্রতি বিষয়ে ৪৫ নম্বরের পরীক্ষায় অংশ নেবে। এর মধ্যে রচনামূলকে ৩০ ও নৈর্ব্যত্তিকে থাকবে ১৫ নম্বর।

আর মানবিক ও ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের ব্যাবহারিক ছাড়া বিষয়গুলোতে শিক্ষার্থীরা প্রতি বিষয়ে ৫৫ নম্বরের পরীক্ষায় অংশ নেবে। এর মধ্যে রচনামূলক পরীক্ষায় ৪০ এবং নৈর্ব্যত্তিক পরীক্ষায় থাকবে ১৫ নম্বর। তবে বাংলা দ্বিতীয় পত্র এবং ইংরেজি প্রথম ও দ্বিতীয় পত্র পরীক্ষা হবে ৫০ নম্বরে।

কয়টি প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে

বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীদের পদার্থবিজ্ঞান প্রথম ও দ্বিতীয় পত্র, রসায়ন প্রথম ও দ্বিতীয় পত্র, উচ্চতর গণিত প্রথম ও দ্বিতীয় পত্রে রচনামূলক অংশে প্রতিটি পত্রে মোট ৮টি প্রশ্ন থাকবে। এর মধ্যে ৩টি প্রশ্নের উত্তর লিখতে হবে। প্রতিটিতে ১০ নম্বর। আর নৈর্ব্যক্তিক ২৫টি প্রশ্ন থাকবে। এর মধ্যে উত্তর দিতে হবে ১৫টির। প্রতিটির মান ১ নম্বর।

আর মানবিক ও ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগ এবং ব্যাবহারিক ছাড়া বিষয়গুলোতে প্রতি পত্রে মোট পরীক্ষা হবে ৫৫ নম্বরে। এর মধ্যে রচনামূলকে থাকবে ৪০ আর নৈর্ব্যক্তিক ১৫ নম্বর। রচনামূলক অংশে ১১টি প্রশ্ন থাকলেও উত্তর দিতে হবে ৪টি প্রশ্নের। প্রতিটিতে ১০ নম্বর। আর নৈর্ব্যক্তিকে ৩০টি প্রশ্নের মধ্যে উত্তর করতে হবে ১৫টির। প্রতিটির মান ১ নম্বর।

সব বিষয়ে পরীক্ষা হবে না

এবারও এইচএসসিতে সব বিষয়ে পরীক্ষা হচ্ছে না। তবে গতবারের চেয়ে এবার বিষয় বেড়েছে। এইচএসসিতে একটি বিষয় (তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি) বাদ দেয়া হয়েছে। বাদ দেয়া বিষয়ে গতবারের মতো এবারও সাবজেক্ট ম্যাপিং করে নম্বর দেয়া হবে।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণের কারণে দীর্ঘদিন আটকে থাকার পর গত বছরের শেষদিকে ২০২১ সালের এসএসসি ও এইচএসসিতে শুধু গ্রুপভিত্তিক তিনটি নৈর্বাচনিক বিষয়ে পরীক্ষা নেয়া হয়। আর অন্যান্য বিষয়ে সাবজেক্ট ম্যাপিং করে ফল প্রকাশ করা হয়।


x