শৌচাগারে আটকা স্কুল ছাত্রী: প্রধান শিক্ষককে শোকজ, আয়া বরখাস্ত

হোসেনপুর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়
এই হোসেনপুর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শৌচাগারেই ১০ ঘন্টা আটকে থাকেন বাকপ্রতিবন্ধী ওই ছাত্রী  © সংগৃহীত

চাঁদপুরের শাহরাস্তি উপজেলার হোসেনপুর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শৌচাগারে বাকপ্রতিবন্ধী এক ছাত্রীর ১০ ঘণ্টা আটকে থাকার ঘটনায় শোকজ করা হয়েছে স্কুলটির প্রধান শিক্ষকে, সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে আয়াকে।

রবিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিস প্রধান শিক্ষক আমির হোসেনকে কারণ দর্শানোর (শোকজ) নোটিস দেয়। তিন কার্যদিবসের মধ্যে তাকে নোটিসের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

আর দায়িত্বে অবহেলার কারণে বিদ্যালয়ের আয়া শাহানারা বেগমকে সাময়িক বরখাস্তের নির্দেশ দেয়। একই সঙ্গে নৈশ প্রহরী কবির হোসেনের কাছে কৈফিয়ত তলব করেছে বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটি।

পাশাপাশি এ ঘটনায় দায় অনুসন্ধানে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটিও করেছে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

এর আগে শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শিরীন আক্তার জানিয়েছেন, তারা প্রাথমিক তদন্তে দায়িত্বে অবহেলার প্রমাণ পেয়েছেন।

গত বৃহস্পতিবার ওই বিদ্যালয়ের এসএসসি পরীক্ষার্থী বাকপ্রতিবন্ধী শিক্ষার্থী শারমিন আক্তার স্কুলের টয়লেটে ১০ ঘন্টা ধরে আটকা পরেন। ওইদিন দুপুর সাড়ে ১২টার সময় বিদ্যালয় ছুটির পর টয়লেটে গেলে তালা বন্ধ করে চলে যায় বিদ্যালয়ের আয়া শাহানারা আক্তার। এরপর দীর্ঘ ১০ ঘন্টা সেই টয়লেটে আটকা থাকে শারমিন। পরে রাত ১০টার দিকে এক পথচারীর মুঠোফোনের আলোয় তা নজরে পড়লে টয়লেটের তালা ভেঙে স্থানীয়রা বাকপ্রতিবন্ধী ওই শিক্ষার্থীকে উদ্ধার করেন।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ