উচ্চ মহলের আশ্বাসে এসেছি: ড. জাফর ইকবাল

শাবিপ্রবিতে আন্দোলন
আন্দোলনকারীদের মাঝে ড. জাফর ইকবাল  © টিডিসি ফটো

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) সাবেক অধ্যাপক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল বলেছেন, এখানে আসার আগে একদম উচ্চ মহল থেকে আমাকে বলা হয়েছে তোমাদের দাবি-ধাওয়া মেনে নেয়া হবে। সেজন্য আমি এখানে এসেছি। নাহলে আমি এখানে আসতাম না। একটু আগে বলা হয়েছে তোমাদের দাবিগুলো যেন লিখে ওনাদেরকে পৌঁছে দেই। তাদের আশ্বাস না থাকলেও আসতাম। তখন অন্যভাবে আসতাম।

তিনি আরও বলেন, আমার আর ছাত্রদের মধ্যে কোনো পার্থক্য নাই। আমাকে যে কথা দেয়া হয়েছে সেটি আশা করি তারা পূরণ করবেন। আমাকে দেয়া কথা যদি না পূরণ করেন তাহলে মনে করবো শুধু শিক্ষার্থীদের সাথে না, আমার সাথে ও দেশের প্রগতিশীল মানুষদের সাথে তারা বিশ্বাসঘাতকতা করেছেন।

আজ বুধবার (২৬ জানুয়ারি) সকালে শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্য করে এসব কথা বলেন তিনি। এর আগে, তিনি ও তার স্ত্রী সাবেক অধ্যাপক ড. ইয়াসমিন হক ২৮ জন শিক্ষার্থীকে পানি খাইয়ে অনশন ভাঙান।

এসময় ড. জাফর ইকবাল আরও বলেন, আমি আসলে কল্পনা করি নাই। এমন একটা জিনিস দেখতে হবে। পুলিশ শতভাগ শান্তিপূর্ণ একটা কর্মসূচিতে এভাবে আক্রমণ করেছে। শুধু আক্রমণই করেনি তারা মিথ্যাচারও করেছে। তারা বলেছে, তোমরা নাকি গুলি করেছো।

আরও পড়ুন- হাসপাতাল থেকে অনশনস্থলে আসলেন ২০ শিক্ষার্থী

একজন শিক্ষার্থী অভিযোগ করে বলেন, শিক্ষকরা তাদের চাষাভুষা বলেছে। এর জবাবে ড. জাফর ইকবাল বলেন, আমরাও চাষাভুষা। চাষাভুষা হওয়াতে আমার অনেক গর্ব। চাষাভুষা নিয়ে সমস্যা ওদের। আমাদের না। 

তিনি বলেন, আমি সরি। এমন সিচুয়েশন দেখতে হয়েছে। আমি কৃতজ্ঞ। তোমরা অনশন ভেঙেছো। ওই মানুষের জন্য তোমাদের জীবন দেয়ার কোনো অর্থ হয় না। তোমাদের জীবনের মূল্য অনেক বেশি। সেটা দিয়ে অনেক বড় কাজ করতে হবে।

বিশ্ববিদ্যালয়টির সাবেক এই অধ্যাপক বলেন, আমি এখানে বহিরাগত। বিশ্ববিদ্যালয়ে নিয়ম করা হয়েছে সাবেক শিক্ষকরা বিশ্ববিদ্যালয়ে ঢুকতে হলে পারমিশন নিতে হবে। পারমিশন ছাড়া ঢুকে গেছি। তাই টেকনিক্যালি আমি বহিরাগত। তবে ক্যাম্পাস তোমাদের। তোমরা যখন আমাকে ডাকবে আমি চলে আসবো।

আরও পড়ুন- ১৬৩ ঘণ্টা পর অনশন ভাঙলেন শিক্ষার্থীরা

বক্তব্যের এক পর্যায়ে এক ছাত্রী বলেন, আমাদের এমন অভিভাবকের কাছে রেখে যাইয়েন না যারা আমাদের ভালোবাসে না। আমাদের কোন স্বাধীনতা নাই। কুক্ষিগত করে রাখা হয়েছে। এর উত্তরে তিনি বলেন, তোমাদেরকে কে কুক্ষিগত করে রেখেছে। তোমরা যদি বলো এই ক্যাম্পাসে স্বাধীনতা আছে। তাহলে স্বাধীনতা আছে। এটা তোমাদের ক্যাম্পাস। 

আবার যদি জলকামন ও রায়ট আসবে না এটার নিশ্চয়তা কী এক ছাত্রের প্রশ্নের জবাবে অধ্যাপক জাফর উকবাল বলেন, আসবে হয়তো। তোমরা আগেরবারের মতো ঠেকাবে। সারাদেশের তরুণ প্রজন্ম তোমাদের পেছনে। তিনি বলেন, তোমরা যদি না চাও তাহলে এখানে কেউ থাকতে পারবে না।  এটুকু বিশ্বাস রেখো।


x

সর্বশেষ সংবাদ