শিক্ষকের রহস্যজনক মৃত্যু

সিদ্ধান্ত ছাড়াই শেষ কুয়েটের সিন্ডিকেট সভা, ফের বসছে কাল

অধ্যাপক ড. মো. সেলিম হোসেন
অধ্যাপক ড. মো. সেলিম হোসেন  © ফাইল ছবি

খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুয়েট) শিক্ষক অধ্যাপক ড. মো. সেলিম হোসেনের মৃত্যুর ঘটনায় কোনো সিদ্ধান্ত ছাড়াই বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট সভা শেষ হয়েছে। আগামীকাল শুক্রবার সকালে এ বিষয়ে আবারও বৈঠক ডাকা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (০২ ডিসেম্বর) সভা শেষে বিশ্ববিদ্যালয়টির রেজিস্ট্রার আনিছুর রহমান এসব তথ্য জানিয়েছেন।

এর আগে, শিক্ষকের মৃত্যুর ঘটনায় গঠিত ৩ সদস্যের তদন্ত কমিটি থেকে পদত্যাগ করেন দুইজন। পরবর্তী করণীয় ঠিক করতে বিকেলে সিন্ডিকেট সভাটি অনুষ্ঠিত হলেও তাতে কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. কাজী সাজ্জাদ হোসেন জানান, মঙ্গলবারের ঘটনা তদন্তে গঠিত কমিটির দুজন সদস্য দায়িত্ব পালনে অপারগতা প্রকাশ করেছেন। বিষয়টি তারা লিখিতভাবে জানিয়েছেন।

অধ্যাপক সেলিম হোসেনের মৃত্যুর ঘটনায় মঙ্গলবার রাতে গঠিত তিন সদস্যের তদন্ত কমিটির প্রধান ছিলেন মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. আরিফুল ইসলাম।

অন্য দুজন সদস্য হলেন- সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক ড. আতাউর রহমান ও ইলেকট্রিক্যাল ও ইলেকট্রনিকস ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক কল্যাণ কুমার হালদার। এর মধ্যে অধ্যাপক কল্যাণ এবং অধ্যাপক আরিফুল ইসলাম দায়িত্ব পালনে অপারগতা প্রকাশ করেছেন।

গত মঙ্গলবার খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিকস ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষক অধ্যাপক ড. সেলিম হোসেনকে সাথে নিয়ে বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থী তার কক্ষে প্রবেশ ও পরে কক্ষ থেকে বের হওয়ার একটি ভিডিও ফুটেজ ভাইরাল হয়েছে।

ফুটেজে দেখা যায়, বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকের নেতৃত্বে ২০/২২ জনের একদল শিক্ষার্থী শিক্ষক সেলিম হোসেনকে ক্যাম্পাসে গতিরোধ করেন এবং এক পর্যায়ে ড. সেলিমের কক্ষে প্রবেশ করেন। সিসিটিভির ফুটেজ অনুসন্ধানে দেখা যায়, প্রায় ৪৫ মিনিট তারা শিক্ষক সেলিম হোসেনের কক্ষে অবস্থান করেন।


মন্তব্য

x

সর্বশেষ সংবাদ