শেষ কর্মদিবসে পালিয়ে বিদায় নিলেন বশেফমুবিপ্রবি উপাচার্য

উপাচার্য
বশেফমুবিপ্রবি  © সংগৃহীত

শিক্ষক এবং শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মুখে শেষ কর্মদিবেসে অনেকটা পালিয়েই বিদায় নিলেন জামালপুরের বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেফমুবিপ্রবি) উপাচার্য ড. সৈয়দ সামসুদ্দিস আহমেদ।

বৃহস্পতিবার (১৭ নভেম্বর) উপাচার্যের কক্ষে তালা ঝুলতে দেখা যায়। এর আগে দুর্নীতির অভিযোগে সোমবার (১৪ নভেম্বর) দুপুর ১২ টায় উপাচার্যকে অবরুদ্ধ করেন শিক্ষক কর্মচারীরা। এর পরে তিনি আর ক্যাম্পসে আসেন নি।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে, উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের নানা অনিয়ম-অব্যবস্থাপনার প্রতিবাদে ১০ দফা দাবিতে টানা ১৪ দিন ধরে অনির্দিষ্টকালের কর্মবিরতি পালন করছেন শিক্ষকেরা। এতে প্রায় দুই সপ্তাহ ধরে শিক্ষা ও প্রশাসনিক কার্যক্রম বন্ধ হয়ে আছে।

আরও পড়ুন: চনপাড়ায় নয়, ফারদিনকে অন্য কোথাও হত্যা করা হয়েছে: ডিবি।

এর ধারাবাহিকতায় সুষ্ঠু পরিবেশ ফিরিয়ে আনা ও উপাচার্যের অপসারণের দাবিতে বুধবার (১৬ নভেম্বর) দুপুর ২টা উপাচার্যের কুশপুত্তলিকা দাহ করেন শিক্ষকেরা।

শেষ কর্মদিবসে বিশ্ববিদ্যালয়ে উপাচার্যের অনুপস্থিতি প্রসঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট সদস্য ও কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মাহমুদুল আলম জানান, শেষ কর্মদিবেসেও বিশ্ববিদ্যালয়ে আসার সাহস পাননি তিনি। অথচ এদিন ওনাকে ফুলেল শুভেচ্ছা দেয়ার কথা ছিল।

ড. সৈয়দ সামসুদ্দিস আহমেদ এক গণমাধ্যমকে জানান, নিয়ম অনুযায়ী তিনি বৃহস্পতিবার রিলিজ হয়ে গেছেন। তবে শেষ কর্মদিবেসে ডিপিপি অনুমোদনের জন্য তিনি ঢাকা অফিসে অবস্থান করছিলেন। রোববার তিনি আগের কর্মস্থলে যোগদান করবেন। 


সর্বশেষ সংবাদ