কোড নিয়ে উপবৃত্তির টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে প্রতারকচক্র, যা বলছে মন্ত্রণালয়

শিক্ষ মন্ত্রণালয়
  © লোগে

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের পরিচয় দিয়ে প্রতারণামূলকভাবে নেওয়া হচ্ছে পিন। আর সেই গোপন পিন ব্যবহার করে শিক্ষার্থীদের টাকা তুলে নিচ্ছে একটি সংঘবদ্ধ প্রতারকচক্র। শিক্ষা মন্ত্রণালয় বলছে, মন্ত্রণালয়ের পরিচয় দিয়ে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান প্রধান, শিক্ষক-কর্মচারী, শিক্ষার্থীদের নিকট মোবাইল ব্যাংক হিসাবের গোপনীয় পিনকোড চাওয়া হয়নি। সংঘবদ্ধ একটি প্রতারকচক্র এটি করছে। তাদের এ ধরনের কর্মকাণ্ডে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সুনাম নষ্ট হচ্ছে এবং মন্ত্রণালয়ের প্রতি সাধারণ মানুষের বিরূপ ধারনা সৃষ্টি হচ্ছে।

সম্প্রতি শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের বাজেট শাখা থেকে এক সতর্কীকরণ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে প্রতিবছর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, শিক্ষক-কর্মচারী ও শিক্ষার্থীদের আর্থিক অনুদান প্রদান করা হয়। তাদের জন্য আর্থিক অনুদান প্রদান অনুসরনীয় নীতিমালা অনুযায়ী বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। এরপর নীতিমালা অনুযায়ী অনলাইনে প্রাপ্ত আবেদন যাচাই-বাছাই করে আর্থিক অনুদান প্রদান করা হয়। কিছু একটি অসাধু চক্র মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের কর্মকর্তাদের পরিচয় দিয়ে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান প্রধান, শিক্ষক-কর্মচারী ও ছাত্র-ছাত্রীদেরকে বিভিন্ন মোবাইল নম্বরসমূহ হতে কল দিয়ে আর্থিক অনুদান প্রদান করবে মর্মে মিথ্যা আশ্বাস দিয়ে তাদের মোবাইল ব্যাংক হিসাবের গোপনীয় পিন কোড নম্বর নিয়ে সে একাউন্ট হতে অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছে। যার ফলে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সুনাম নষ্ট হচ্ছে এবং এ বিভাগের প্রতি সাধারণ মানুষের বিরূপ ধারনা সৃষ্টি হচ্ছে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের পরিচয় দিয়ে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান প্রধান, শিক্ষক-কর্মচারী, শিক্ষার্থীদের নিকট মোবাইল ব্যাংক হিসাবের গোপনীয় পিনকোড চাওয়া হয়নি। এছাড়া মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ হতে অর্থ করা হয়না। য মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অথবা অন্য যে কোন পরিচয় দিয়ে পিন কোড/অর্থ দাবি করে তাহলে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত অবস্থা নেয়াসহ এ বিষয়ে প্রতারকচক্র হতে সতর্ক থাকার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে নির্দেশক্রমে অনুরোধ করা হল।


মন্তব্য