পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সুযোগ পাচ্ছেন ডিপ্লোমার শিক্ষার্থীরা

উচ্চশিক্ষা
পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সুযোগ পাচ্ছেন ডিপ্লোমার শিক্ষার্থীরা  © ফাইল ফটো

পলিটেকনিক থেকে পাশকৃত ডিপ্লোমাধারীরা কেবলমাত্র গাজীপুরে অবস্থিত ঢাকা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (ডুয়েট) থেকে উচ্চশিক্ষা গ্রহণের সুযোগ পেতেন। এতে করে চরম বৈষম্যের শিকার হতেন ডিপ্লোমাধারীরা। তবে তাদের সেই বৈষম্য দূর করার উদ্যোগ নিয়েছে কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগ। দ্রুত সময়ের মধ্যে ডিপ্লোমা শিক্ষার্থীদের সরকারি প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি সুযোগের ব্যবস্থা করতে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, গত জুলাই মাসে শিক্ষা মন্ত্রণালয়, ইউজিসি এবং পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের প্রতিনিধিদের সমন্বয়ে একটি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় ডিপ্লোমা শিক্ষার্থীদের সরকারি প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির ক্ষেত্রে ক্রেডিট সমন্বয় করার কথা জানানো হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে ইতিবাচক সাড়া দিয়েছে বিশ্ববিদ্যাল মঞ্জুরী কমিশনও।

সূত্র আরও জানায়, সবকিছু ঠিক থাকলে আগামী শিক্ষাবর্ষ থেকেই ডিপ্লোমা শিক্ষার্থীরা গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষার মাধ্যমে সরকারি প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির সুযোগ পাবেন। তবে বিষয়টি চূড়ান্ত করতে সংশ্লিষ্ট বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর উপাচার্যদের সাথে বৈঠক করার পর আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা দেওয়া হবে।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে ইউজিসি সচিব ড. ফেরদৌস জামান জানান, পলিটেকনিক থেকে পাসকৃত ডিপ্লোমা শিক্ষার্থীদের প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির দাবিটি অত্যন্ত যৌক্তিক। আমরা শিগগিরই সংশ্লিষ্ট বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর উপাচার্যদের সাথে বসে এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে সিদ্ধান্ত নেব।

জানতে চাইলে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মো. মহসিন বলেন, ডিপ্লোমা শিক্ষার্থীরা কেবলমাত্র ডুয়েট থেকে উচ্চশিক্ষা গ্রহণের সুযোগ পেয়ে থাকে। কিন্তু আমরা যদি শিক্ষার্থীদের ইয়ার অব স্কুলিং বিবেচনা করি তাহলে তারা দেশের সকল সরকারি প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির অধিকার রাখে।

তিনি আরও বলেন, শিক্ষার্থীদের অধিকার থেকে তাদের দীর্ঘদিন বঞ্চিত রাখা হয়েছে। আমরা ইউজিসির কাছে শিক্ষার্থীদের উচ্চশিক্ষার সুযোগ সম্প্রসারণে জরুরি ভিত্তিতে উদ্যোগ নিতে বলেছি। ক্রেডিট সমন্বয় করে অন্যান্য প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে ডিপ্লোমা শিক্ষার্থীদের ভর্তির বিষয়ে ইউজিসি এখনো আমাদের নিশ্চিতভাবে কিছু জানায়নি।

জানা গেছে, দেশের সরকারি প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির ক্ষেত্রে এইচএসসি/সমমান যা এসএসসি এর পর দুই বছর মেয়াদী কোর্স অর্থাৎ মোট ১২ বছরের স্কুলিং এরপর বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হয়ে থাকে। আর ডিপ্লোমা ইন ইঞ্জিনিয়ারিং শিক্ষাক্রম এসএসসি এর পর চার বছর মেয়াদী কোর্স অর্থাৎ ১৪ বছরের স্কুলিং সম্পন্ন হয়। এক্ষেত্রে ডিপ্লোমা শিক্ষার্থীদের পরবর্তী দুই বছরের জন্য ১৮ ক্রেডিট সমন্বয় করা হতে পারে।

প্রসঙ্গত, বাংলাদেশে প্রকৌশল শিক্ষার সূচনা হয় ১৯০৮ সালে আহসানউল্লাহ ইঞ্জিনিয়ারিং স্কুলের (বর্তমান বুয়েট) মাধ্যমে। তখন ডিপ্লোমা কোর্স ছিল তিন বছর মেয়াদি। বর্তমানে ৪৯টি সরকারি পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট, একটি ভোকেশনাল টিচার্স ট্রেনিং ইনস্টিটিউট, সাতটি সরকারি টেক্সটাইল ইনস্টিটিউট, ছয়টি সরকারি মেরিন ইনস্টিটিউট, ৬৪টি টেকনিক্যাল স্কুল অ্যান্ড কলেজসহ সাড়ে চার শতাধিক বেসরকারি পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট থেকে প্রতি বছর সোয়া লাখ শিক্ষার্থী ডিপ্লোমা ডিগ্রি অর্জন করেন। তারা ডিপ্লোমা পাস করলেও উচ্চশিক্ষা গ্রহণের সুযোগ পান না। কেবলমাত্র গাজীপুরে অবস্থিত ঢাকা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (ডুয়েট) ডিপ্লোমা শিক্ষার্থীদের ভর্তি করা হয়।


মন্তব্য