শিক্ষামন্ত্রীর নাম ব্যবহার করে উপবৃত্তির ভুয়া মেসেজ

ফেসবুক
মোবাইল ফোনে আসা ক্ষুদেবার্তা  © স্ক্রিনশট

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনির নাম ব্যবহার করে উপবৃত্তির টাকার প্রলোভন দেখিয়ে মোবাইলে মেসেজ পাঠানো হচ্ছে। মেসেজে মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে উপবৃত্তির টাকা দেওয়া হচ্ছে জানিয়ে একটি ফোন নম্বরে যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে। অথচ দেশের উপবৃত্তির টাকার জন্য কোনো ফোন নম্বরে যোগাযোগের নিয়ম নেই।

গতকাল রোববার (১ আগস্ট) রাত ৯টা ১২ মিনিটে দ্যা ডেইলি ক্যাম্পাসের একজন প্রতিবেদকের মোবাইল ফোনে ০১৬২৬৬২১০১৫ নম্বর থেকে এমন একটি মেসেজ আসে। মেসেজে বলা হয়, ‘প্রিয় শিক্ষার্থী! Coronavirus (Covid-19)এর কারণে তোমাদের উপবৃত্তির 4500 টাকা দেওয়া হচ্ছে / টাকা গ্রহনের জন্য শিক্ষাবোর্ডের নাম্বার যোগাযোগ করুন মোবাইল নাম্বার (01322500358) গোপন নাম্বার (8810) শিক্ষামন্ত্রী ডা: দীপু মনিs’

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের তথ্য ও জনসংযোগ কর্মকর্তা আবুল খায়ের দ্যা ডেইলি ক্যাম্পাস ফ্যাক্টচেককে বলেন, ‘সরকারের পক্ষ থেকে শিক্ষার্থীর নগদসহ অন্যান্য মোবাইল ফাইনান্সিয়াল সার্ভিস এবং ব্যাংক একাউন্টে এক ক্লিকে উপবৃত্তির টাকা পাঠিয়ে দেওয়া হয়। এখানে মধ্যবর্তী কারও সঙ্গে যোগাযোগের কোনো অপশন নেই।’

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনির নাম ব্যবহার করে এমন মেসেজ পাঠানোর বিষয়ে আবুল খায়ের বলেন, ‘এখানে প্রতারণার উদ্দেশ্যেই শিক্ষামন্ত্রীর মহোদয়ের নাম ব্যবহার করা হচ্ছে। যথাযথ কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

আরও পড়ুন: টিকাকেন্দ্রে স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে থাকবে ছাত্রলীগ

গত এপ্রিলে দেশের মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি প্রাপ্তির জন্য মোবাইল ব্যাংকিং/অনলাইন ব্যাংকিং অ্যাকাউন্ট ব্যবহারসংক্রান্ত নির্দেশনা জারি করে প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট।

এ ক্ষেত্রে কোনো মাধ্যম ধরার বা কারও সঙ্গে ফোনে যোগাযোগের বিষয় নেই।

প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্টের নির্দেশনায় বলা হয়, প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্টের আওতায় সমন্বিত উপবৃত্তি কর্মসূচির (এইএসপি) মাধ্যমে ২০২১ সালের ষষ্ঠ, নবম ও ২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষের একাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থীরা উপবৃত্তি কর্মসূচিতে অন্তর্ভুক্তির জন্য যেকোনো মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাকাউন্ট/যেকোনো তফসিলি ব্যাংকের অনলাইন ব্যাংকিং অ্যাকাউন্ট নম্বর ব্যবহার করতে পারবে।


মন্তব্য

x