মদ বিক্রিতে রেকর্ড গড়েছে দেশীয় কেরু এন্ড কোম্পানি

মদ বিক্রিতে রেকর্ড গড়েছে দেশীয় কেরু এন্ড কোম্পানি
কেরু এন্ড কোম্পানির মদ  © সংগৃহিত

নিয়ন্ত্রণের কারণে বিদেশি মদ আমদানি কমে যাওয়ায় মদ বিক্রি ও মুনাফায় রেকর্ড গড়েছে দেশের একমাত্র লাইসেন্সধারী অ্যালকোহল উৎপাদনকারী কেরু অ্যান্ড কোম্পানি (বাংলাদেশ) লিমিটেড। কোম্পানির ইতিহাসে প্রথমবারের মতো মোট বিক্রি ৪০০ কোটি টাকা ছাড়িয়েছে ।

সদ্য শেষ হওয়া ২০২১-২২ অর্থবছরে কেরু অ্যান্ড কোং আগের বছরের চেয়ে প্রায় ১০ লাখ প্রুফ লিটার বেশি মদ বিক্রি করেছে।

শুল্ক ফাঁকি রোধে গত বছর মদ আমদানিতে নজরদারি বাড়ায় জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। ফলে বৈধপথে মদ আমদানি হ্রাস পায়। এতে করে অনুমোদিত বারগুলোতে বিদেশি মদের সংকট দেখা দেয়।

আরও পড়ুন: ৫ মাসের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রে তেল, গ্যাসের দাম সর্বনিম্ন

এরপর থেকেই দেশে উৎপাদিত মদের চাহিদা বৃদ্ধি পায়। বর্ধিত চাহিদা পুরণে কেরু অ্যান্ড কোং উৎপাদন বাড়িয়েছে। ফলে কোম্পানিটির উৎপাদিত মদ বিক্রি বৃদ্ধির সঙ্গে বাড়ছে মুনাফার পরিমাণও।

কোম্পানি সূত্র জানিয়েছে, শুধু ডিস্টিলারি ইউনিট বা মদ উৎপাদন থেকে তাদের আয় ৩৬৭ কোটি টাকা, যা এ যাবৎকালে সর্বোচ্চ।

বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্য শিল্প কর্পোরেশনের অধীনে তত্ত্বাবধানে থাকা কেরু অ্যান্ড কোং তাদের ডিস্টিলারি ইউনিট থেকে ১০০ কোটি টাকারও বেশি মুনাফা করেছে, এটিও এবার প্রথম। আগের বছর এই সংখ্যা ছিল প্রায় ৯০ কোটি টাকা।

অন্যদিকে, কেরুর চিনি ইউনিটকে বড় লোকসান গুনতে হয়েছে। তবে ঠিক কত লোকসান হয়েছে তা এখনো কোম্পানি কর্তৃপক্ষ নির্ণয় করতে পারেনি।

কেরু অ্যান্ড কোং এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ মোসারুফ হোসেন দ বলেন, ‘আগের বছরের চেয়ে এবার ২৫-৩০ শতাংশ বিক্রি বেড়েছে। সরকারের বিভিন্ন পদক্ষেপ কোম্পানির বিক্রি বাড়াতে সহায়ক হয়েছে।’


x

সর্বশেষ সংবাদ