১২ বছর বয়সেই ৩ লাখ পাউন্ডের মালিক এই স্কুলছাত্র

তরুণ
বেনইয়ামিন আহমেদ   © সংগৃহীত

১২ বছর বয়সী বেনইয়ামিন আহমেদ, পড়াশোনা লন্ডনের একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। বন্ধের দিনগুলোতে বাসায় বসে না থেকে তিমির ডিজিটাল ছবি অঙ্কন করে আয় করেছে প্রায় ৩ লাখ পাউন্ড।

বেনিয়ামিন আহমেদ ভিডিও গেম ‘মিনেক্রাফটে’ দেখা তিমির সাধারণ স্টাইলের ৩৩৫০টি এমন ডিজিটাল ছবি সৃষ্টি করেছে। বেনইয়ামিন ‘পিক্সেলেটেড আর্ট’ হিসেবে ছবিগুলো এঁকেছে এবং তার এ ছবিগুলোর নাম দেওয়া হয় ‘উইয়ার্ড হোয়েলস’।

বেনইয়ামিনকে নিয়ে যুক্তরাজ্য ভিত্তিক সংবাদমাধ্যম বিবিসি’র রিপোর্ট চমকে দেয় সারা পৃথিবীকে। সে অনলাইন ব্যবসায় শুধু সফল নয় বরং অতিমাত্রায় সফল- এমনটি বলছে দ্য গার্ডিয়ান।

বেনইয়ামিনের বাবা ইমরান পেশায় একজন সফটওয়্যার ডেভলপার। তিনি সন্তানের এ অভূতপূর্ব সফলতায় নিজেকে গর্বিত মনে করেন। ইমরান জানান, বেনইয়ামিন এবং ইউসেফকে (২য় সন্তান) পাঁচ-ছয় বছর বয়স থেকেই তিনি কোডিং এ উৎসাহ দিয়ে আসছিলেন। তারা অল্প বয়সেই কোডিংয়ে আগ্রহী হয়ে উঠে।

তিনি আরও বলেন, আমার ছেলেরা দিনে ২০ থেকে ৩০ মিনিট সময় পেত কোডিং অনুশীলনে। এটা তারা মজাচ্ছলেই করতো।

বেনইয়ামিনের বাবা জানান, বেনইয়ামিন শতভাগ কপিরাইট আইন মেনেই কাজ করছে। এ ক্ষেত্রে আইনজীবিদের সহযোগিতা নিচ্ছে তার কাজ তদন্ত করতে এবং ট্রেডমার্ক অনুসরণ করতে।

বিবিসির প্রতিবেদনে উঠে আসে, বর্তমানে বেনইয়ামিন কাজ চালিয়ে যাচ্ছে নতুন নতুন থিম নিয়ে। কোডিং এর পাশাপাশি নিজের সে দৈনন্দিন জীবন তথা সাঁতার, ব্যাডমিন্টনসহ নানা বিষয় নিয়েও ভিডিও তৈরি করে আপলোড করছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ