লক্ষ্মীপুরে জাতীয় বিজ্ঞান বিতর্কে চ্যাম্পিয়ন কালেক্টরেট স্কুল

লক্ষ্মীপুরে জাতীয় বিজ্ঞান বিতর্কে চ্যাম্পিয়ন কালেক্টরেট স্কুল
অতিথিদের সঙ্গে বিজয়ীরা  © সংগৃহীত

লক্ষ্মীপুরে বিএফএফ-সমকাল জাতীয় বিজ্ঞান বিতর্ক উৎসব ২০২২অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রাণবন্ত এই বিতর্ক উৎসবে চ্যাম্পিয়ন হয় কালেক্টরেট স্কুল এন্ড কলেজ, লক্ষ্মীপুর ও রানার্সআপ হয় লক্ষ্মীপুর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক মো. আনোয়ার হোছাইন আকন্দ। তিনি চ্যাম্পিয়ন, রানার্স ও শ্রেষ্ঠ বক্তার হাতে পুরস্কার তুলে দেন। 

বৃহস্পতিবার দিনব্যাপী এ আয়োজনে যুক্তিতকের্র জমজমাট লড়াইয়ে বক্তারা বলেন, বিজ্ঞান মনষ্ক জাতি গড়তে সকলের অংশগ্রহণ জরুরী। বিএফএফ-সমকাল জাতীয় বিজ্ঞান বিতর্ক উৎসবে বিতার্কিকরা যুক্তি পাল্টা যুক্তি প্রদানের মাধ্যমে জাতীয় বিজ্ঞান বিতর্ক উৎসব ২০২২ উঠে আসে বিজ্ঞানপ্রিয় ক্ষুদে শিক্ষাথীদের নানা ভাবনা। বিতার্কিকরা বলেন,বিজ্ঞান মনষ্ক জাতি গড়তে হলে সরকার ও জনগণের সার্বিক সচেতনতা নিশ্চিত করতে হবে। সরকার ও জনগণকে এক সাথে কাজ করতে হবে। তারা বলেন, সরকার উদ্যোগ গ্রহণ করবে জনগণের তাদের অংশগ্রহন নিশ্চিত করতে হবে। পাশাপাশি সকলের মানসিকতার পরিবর্তন আনতে হবে।

আরও পড়ুন: ঢাবিতে নাফিয়া গাজী আন্তঃবিভাগ বিতর্কে চ্যাম্পিয়ন নৃবিজ্ঞান

তারা আরো বলেন, বিজ্ঞান মনষ্ক জাতি গড়ার বিষয়টি একটি ধারণা বা চিন্তা মাত্র। তাকে বাস্তবে রুপ দিতে হলে সরকারকে উদ্যোগী হতে হবে। সেই সাথে জনগণের অংশগ্রহনের মানসিকতা থাকতে হবে। কেননা সরকার উদ্যোগ নিলে জনগণ তাতে অংশগ্রহন না করলে সেই উদ্যোগ বাস্তবায়ন করা যাবে না। অংশগ্রহনকারী বিতার্কিকদের বক্তব্যে বার বার উঠে আসে উন্নত ও সমৃদ্ধ জাতি বিনির্মাণে বিজ্ঞান চর্চার কোন বিকল্প নেই। তাই বিজ্ঞান চর্চার পাশাপাশি এর ইতিবাচক ব্যবহার নিশ্চিতে সকলকে আরো বেশি সচেতন হতে হবে। 

বৃহস্পতিবার দিনব্যাপি শহরের প্রাণ কেন্দ্রে অবস্থিত কালেক্টরেট স্কুল এন্ড কলেজ এর হলরুমে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে আগত শিক্ষার্থীদের প্রাণবন্ত উপস্তিতিতে ও যুক্তিতর্কের লড়াইয়ে জমে ওঠে জেলা পর্যায়ে জাতীয় বিজ্ঞান উৎসবের লক্ষ্মীপুর পর্ব। অংশগ্রহণকারী ৭ টি বিদ্যালয়ের বিতার্কিকরা লটারির মাধ্যমে ৪টি গ্রুপে বিভক্ত হয়ে বিতর্কে অংশ নেয়। 

বিতর্ক মানেই যুক্তি,বিজ্ঞানে মুক্তি স্লোগানকে সামনে নিয়ে বিভিন্ন রাউন্ডে যুক্তিতর্কের লড়াইয়ে যুক্তিতর্কের মধ্যদিয়ে প্রিন্সিপাল কাজী ফারুকী স্কুল এন্ড কলেজ, লক্ষ্মীপুর সরকারি বালিকা উচচ বিদ্যালয়, রায়পুর সরকারি মার্চ্চেটস একাডেমী, প্রতাপগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়,লক্ষ্মীপুর কলেজিয়েট উচ্চ বিদ্যালয়,লক্ষ্মীপুর পৌর শহীদ স্মৃতি একাডেমীসহ মোট ৭ টি দল অংশগ্রহন করে বিতর্কের শ্রেষ্টত্বে লড়াইয়ে। রাউন্ড ভিত্তিক বিতর্কে ফাইনালের মঞ্চে লড়াইয়ে উপনীত হয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় কালেক্টরেট স্কুল এন্ড কলেজ, লক্ষ্মীপুর। যুক্তির লড়াইয়ে শ্রেষ্ঠ বক্তা নির্বাচিত হয় রানার্সআপ দলের দলনেতা লক্ষ্মীপুর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী স্নেহা ফাতিমা প্রেমা ।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন রাখেন লক্ষ্মীপুর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক  অপু চন্দ্র দাস, কালেক্টরেট স্কুল এন্ড কলেজ উপাধ্যক্ষ রীনা সুলতানা,মু. আব্দুস সাত্তার শামীম, বিতর্ক প্রতিযোগিতার প্রধান সমন্বয়ক ও সমকাল প্রতিনিধি আতোয়ার রহমান মনির, জাতীয় যুব পুরস্কার ২০২১ এ চট্রগ্রাম বিভাগে প্রথমস্থান অর্জণকারী সফল আত্নকর্মী ও সমকাল সহৃদ এর লক্ষ্মীপুর জেলা সভাপতি আইরিন সুলতানা, সহ-সভাপতি মাহবুবের রহমান।

এছাড়া বিচারক প্যানেল থেকে বক্তব্য রাখেন  মো: ওসমান শুভ, মো. মামুন, ফাইনাল বিতর্কে মডারেটর হিসেবে ছিলেন মো: মাহবুবুর রহমান।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন বর্তমান ও সাবেক বির্তাকিক, বিতর্ক সংগঠক,বিতর্কপ্রিয় শিক্ষার্থীরাসহ সমকাল সুহৃদ সমাবেশের সদস্যরা। পাশাপাশি জেলার প্রিন্ট ও অনলাইন এবং ইলেকট্রনিক্স মিডিয়াসহ স্থানীয় গণমাধ্যম কর্মীরা। 


সর্বশেষ সংবাদ