শিকাগোর প্যারেডে গুলি করে নারী সেজে পালান হামলাকারী

হামলা
তৃতীয় রবার্ট ক্রিমো  © সংগৃহীত

যুক্তরাষ্ট্রের শিকাগোর পাশে ইলিনয় অঙ্গরাজ্যে হাইল্যান্ড পার্ক চত্বরে স্বাধীনতা দিবসের প্যারেডে ৭০টির বেশি গুলি করে নারী সেজে স্থানত্যাগ করেন তৃতীয় রবার্ট ক্রিমো নামের হমলাকারী। সোমবার (৪ জুলাই) শিকাগোর প্যারেডে অংশগ্রহণকারীদের লক্ষ্য করে রাইফেল থেকে ৭০টির বেশি বুলেট ছোঁড়েন রবার্ট। এরপর নারী সেজে পালিয়ে যান ভীড়ের মধ্য থেকে।

সোমবার ইলিনয়ে স্বাধীনতা দিবসের প্যারেডে দূরে এক ভবনের উপর থেকে এলোপাতাড়ি গুলি ছুড়ে রবার্ট এতে ৬ জন নিহত ও আহত হন অন্তত আরো শতাধিক লোক। ঘটনার পর প্রায় আট ঘণ্টার অভিযানের মাধ্যমে আটক করা হয় রবার্টকে। তার বাড়ি থেকে উদ্ধার হয় আরও তিনটি আগ্নেয়াস্ত্র।

এ ঘটনায় হামলাকারীর বিরুদ্ধে হত্যা ও হত্যাচেষ্টাসহ ৭টি অভিযোগ গঠন করা হয়েছে। অভিযোগ প্রমাণিত হলে তার সর্বোচ্চ সাজা প্যারোলবিহীন যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হতে পারে বলে জানিয়েছে বার্তসংস্থা রয়টার্স।

আরও পড়ুন: বোনের সঙ্গে প্রেম করায় বন্ধুকে খুন।

ইলিনয়ের স্টেট অ্যাটর্নি এরিক রেইনহার্ট জানান, আরও বেশ কয়েকটি মামলা হতে পারে ২১ বছর বয়সী রবার্ট ক্রিমোর বিরুদ্ধে। পুলিশের তদন্তে রবার্টের বিষয়ে উঠে আসছে একের পর এক চমকপ্রদ তথ্য। গত বছর মোট ৫টি আগ্নেয়াস্ত্র কেনেন ক্রিমো। ২০১৯ সালের এপ্রিলে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন এই ২১ বছর বয়সী তরুণ। একই বছর সেপ্টেম্বরে পরিবারের সদস্যদের হত্যার হুমকি দিচ্ছেন বলে অভিযোগ দায়ের করা হয় থানায়।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, শিকাগোর একাধিক জায়গায় তাণ্ডব চালায় রবার্ট। কাগোর ইলিনয়ের সাউথ ওয়েন্টওয়ার্থ অ্যাভিনিউতে ২৪ বছর বয়সি এক তরুণীর মৃত্যু হয়। গ্র্যান্ড ক্রসিংয়ের কাছেও ৩ জনের মৃত্যু হয়।

বন্দুক নিয়ন্ত্রণ আইন পাসের পর যুক্তরাষ্ট্রে প্রথম এ হামলার ঘটনা ঘটলো। ন্যক্কারজনক এ হামলার ঘটনায় প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন চমকে গেছেন বলে জানিয়েছে হোয়াইট হাউস।

সূত্র: বিবিসি


x