গোলাপগঞ্জে বলাৎকারের অভিযোগে মাদ্রাসাশিক্ষককে গণপিটুনি

বলাৎকার
অভিযুক্ত মাদ্রাসাশিক্ষক ক্বারী মাওলানা ফয়েজ উদ্দিন  © টিডিসি ফটো

সিলেটের গোলাপগঞ্জ উপজেলায় বলাৎকারের অভিযোগে মাদ্রাসা শিক্ষককে গণপিটুনি পর পুলিশে দিল জনতা। অভিযুক্ত ক্বারী মাওলানা ফয়েজ উদ্দিন (৫০) গোলাপগঞ্জ পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ডে অবস্থিত মুহাম্মাদিয়া তাহফিজুল কুরআন মাদ্রাসার পরিচালকের দায়িত্বে রয়েছেন। পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে রবিবার (২২মে) স্থানীয়রা তাকে গণপিটুনি দিয়ে থানায় সোর্পদ করে।

জানা যায়, এরপূর্বে গত মার্চে ঐ শিক্ষার্থীকে বলাৎকার করেন অভিযুক্ত মাওলানা ফয়েজ উদ্দিন। পরবর্তীতে গত শনিবার সর্বশেষ আবারো জোরপূর্বক বলাৎকারের চেষ্টা করেন তিনি। এরপর মাদ্রাসা ত্যাগ করে চলে যায় সেই ছাত্র। পরের দিন মাদ্রাসায় যেতে অনীহা দেখালে তার পরিবার কেন মাদ্রাসায় যাবে না এবিষয়ে জানতে চায়, পরে সে তাদের কাছে ঘটনা খুলে বলে। শিক্ষার্থীর পরিবার বিষয়টি পরের দিন স্থানীয়দের জানায়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে গোলাপগঞ্জ মডেল থানার উপপরিদর্শক ফয়জুল করিম বলেন, এই ঘটনার মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। বর্তমানে অভিযুক্ত শিক্ষক পুলিশি হেফাজতে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।


x