নীলফামারীতে চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্রীকে ধর্ষণ, আটক ২

ধর্ষণ
শিশু ধর্ষণ  © টিডিসি ফটো

নীলফামারীতে চতুর্থ শ্রেণীর এক শিক্ষার্থী ধর্ষণের শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। সোমবার (১৭ জানুয়ারি) ডিমলা উপজেলার খালিশা চাপানি ইউনিয়নের এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় পুলিশ দুই যুবককে আটক করেছে।

আটকরা হলেন- সুজন ইসলাম ও বুলু বাদশা। সুজন ঝুনাগাছ চাপানী ইউনিয়নের মোশাররফ হোসেনের ছেলে ও বুলু আমিনুর রহমানের ছেলে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, ওই শিশুকে বাড়িতে রেখে বাবা-মা পাশের এলাকায় এক আত্মীয়দের জানাজায় যান। বাড়িতে কেউ না থাকায় এ সুযোগে সুজন ইসলাম ও বুলু বাদশা বাড়িতে ঢুকে শিশুকে ধর্ষণ করেন। রাতে বাড়িতে ফিরে মেয়েকে মেঝেতে পড়ে থাকতে দেখে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। পরে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য নীলফামারী সদর হাসপাতালে পাঠান।

শিশুটির চাচা জানান, রাতে মেয়ের অবস্থার অবনতি হলে ডিমলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করানো হয়। পরে চিকিৎসকেরা শিশুটিকে নীলফামারী সদর আধুনিক হাসপাতালে রেফার করেন। সে এখন সেখানে চিকিৎসাধীন।

ডিমলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক ডা. শফিকুল ইসলাম জানান, প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে রাতেই শিশুটিকে নীলফামারী সদর আধুনিক হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।

ডিমলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সিরাজুল ইসলাম বলেন, শিশুটির পরিবারের পক্ষ থেকে মামলার প্রস্তুতি চলছে। এ ঘটনায় দুইজনকে আটক করা হয়েছে।


x

সর্বশেষ সংবাদ