বাসর রাতেই ঝুলছিল বরের লাশ

আত্মহত্যা
বর মো. বাবুল হোসেন  © সংগৃহীত

বাসর রাতেই মো. বাবুল হোসেন (১৯) নামের এক বরের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। চাঞ্চল্যকর এ ঘটনায় লাশটি ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। শুক্রবার (২৪ সেপ্টেম্বর) রাতে পঞ্চগড় জেলার দেবীগঞ্জ উপজেলার চিলাহাটি ইউনিয়নের চরতিস্তাপাড়া গ্রামে ঘটনাটি ঘটেছে। বাবুল ওই গ্রামের মো. সফিজুল ইসলামের ছেলে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানান, শুক্রবার রাতে জেলার বোদা উপজেলার বড়শশী ইউনিয়নের এক তরুণীর সঙ্গে দেবীগঞ্জের চিলাহাটি ইউনিয়নের বাবুলের বিয়ে হয়। আজ শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) সকালে ছিল বৌভাত। কিন্তু রাতে বাড়ির রান্নাঘরের বাঁশের সরের সঙ্গে তার ঝুলন্ত লাশ দেখতে পায় পরিবারের লোকজন। লাশ দেখে তারা চিৎকার চেঁচামেচি করেন। বিষয়টি পুলিশকে অবহিত করা হলেও পুলিশ আসার আগেই এলাকাবাসী ঝুলন্ত লাশটি নামিয়ে আনেন।

পরিবারের লোকজন জানান, বাসর রাতে ঘরে থাকা নিয়ে পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে বাবুলের মনোমালিন্য হয়েছিল। তাদের ধারণা, এতে রাতে কোনও এক সময় বাবুল রান্নাঘরে এসে ফাঁস দেন।

দেবীগঞ্জ থানার ওসি জামাল হোসেন ও এসআই মো. শাকিলুর রহমান ঘটনাস্থলে গিয়ে ফাঁসের স্থানে ক্রুটি দেখতে পেয়ে লাশের সুরতহাল শেষে ময়নাতদন্তের জন্য পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

দেবীগঞ্জ থানার ওসি জামাল হোসেন জানান, প্রাথমিকভাবে সুরতহাল ও বিষয়টি সন্দেহজনক মনে হওয়ায় লাশ ময়নাতদন্তের জন্য পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এখন পর্যন্ত ছেলে বা মেয়ে পক্ষের কেউ কোনও অভিযোগ দাখিল করেননি। তবে বিষয়টি তদন্ত করা হচ্ছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


মন্তব্য

এ বিভাগের আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ