মিরপুরে যুবলীগ নেতার মারধরের শিকার ২ তরুণ লেখক

লেখক
ভুক্তভোগী দুই লেখক  © সংগৃহীত

রাজধানীর মিরপুরে স্থানীয় এক যুবলীগ নেতার মারধরের শিকার হয়েছেন দুই লেখক। অভিযুক্ত আহমেদ হোসেন রাজা মিরপুর দুইয়ের যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক। ভুক্তভোগী দুই লেখক হলেন- শেখ সাদ্দাম হোসেন ও হুমায়ুন শফিক। শুক্রবার সন্ধ্যায় মিরপুর দুইয়ের পানির ট্যাংকির গলিতে এ ঘটনা ঘটে।

ভুক্তভোগী দুই লেখকের বন্ধু মোহাম্মাদ রোমেল জানান, সন্ধ্যায় লেখক সাদ্দাম ও হুমায়ুন চা খাওয়ার মাঝে নিজেদের মধ্যে কথা বলছিল। এসময় হঠাৎ করে যুবলীগ নেতা রাজা এসে লেখক সাদ্দামকে জিজ্ঞেস করে এখানে বসে চা খাচ্ছিস কেন? তোর মুখে মাস্ক কই? এসময় রাজাসাদ্দামকে কয়েকটি চড়-থাপ্পড় মারে।

সাদ্দাম ও হুমায়ুনের মুখে মাস্ক থাকলেও চা খাওয়ার সময় তারা মাস্ক থুতনির নিচে নামিয়ে রেখেছিল। সাদ্দামকে যখন ওই ব্যক্তি মারা শুরু করে তখন সাদ্দামের সঙ্গে থাকা হুমায়ুন এ যুবলীগ নেতাকে বলেন, ভাই আপনার মুখে তো মাস্কই নাই, আপনি অন্যের মাস্কের কথা জিজ্ঞাসা করছেন কেন? তখন রাজা ও তার সাথে থাকা ১০/১২ জন হুমায়ুনের ওপর চড়াও হয়ে ব্যাপক মারধর করে।

স্থানীয়রা জানান, রাজা প্রায়ই গলির মধ্যে ক্ষমতা দেখাতে সাধারণ মানুষের ওপর চড়াও হয় বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। তার সহযোগীরা সাদ্দাম ও হুমায়ুনকে মারধরের পর হুমকি দিয়ে বলে, তোরা এখানে মাদকের ব্যবসা করছিস, তোদের আমি পুলিশে ধরিয়ে দেব। এ পরিস্থিতিতে সাদ্দাম ও হুমায়ুন কৌশলে একপর্যায়ে ওই গলি থেকে বের হয়ে যায়। পরে ভুক্তভোগী সাদ্দাম ও হুমায়ুন মিরপুর ২ নম্বর থানায় অভিযোগ জানাতে যান। সেখানে এসআই নাসির তাদের অভিযোগ মীমাংসার দায়িত্ব নেন।

এসআই নাসির বলেন, অভিযোগ পাওয়ার পর ভুক্তভোগীদের নিয়ে আমি ঘটনাস্থলে যাই। সেখানে অভিযুক্ত রাজা তাদের কাছে দুঃখ প্রকাশ করে ভুল হয়েছে বলে ক্ষমা চাওয়ায় বিষয়টির সেখানেই মীমাংসা হয়ে যায়। এ বিষয়ে অভিযুক্ত যুবলীগ নেতা রাজা বলেন, পুরো বিষয়টাই ভুল বোঝাবুঝি থেকে হয়েছে। পুলিশের উপস্থিতিতে তাদের সঙ্গে মিটমাট হয়ে গেছে।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ