হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে মারা হলো কলেজছাত্রকে

পাংশায় এক কলেজছাত্রকে পিটিয়ে মারার অভিযোগ উঠেছে
রাজবাড়ীর পাংশায় এক কলেজছাত্রকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে মারার অভিযোগ উঠেছে  © প্রতীকী ছবি

রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলার কাচারীপাড়া গ্রামে সাজেদুর রহমান সিফাত (১৮) নামে এক কলেজছাত্রকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। বুধবার (১৩ জানুয়ারি) রাত সাড়ে ৮টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। নিহত সাজেদুর কাচারীপাড়া গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে। তিনি পাংশা কলেজ থেকে এবার এইচএসসি পরীক্ষায় অংশ নেন।

পাংশার হাবাসপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল আলীম জানান, গত মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে ব্যাডমিন্টন খেলা দেখে বন্ধু স্বপনের সঙ্গে বাড়ি ফিরছিলেন সাজেদুর। তার বাড়ি থেকে ৩০০ মিটার দূরে সন্ত্রাসীরা রাস্তার উপর গাছ ফেলে তাদের মোটরসাইকেলের গতিরোধ করে। এসময় হত্যার উদ্দেশে প্রথমে স্বপনের উপর ইট ছোড়ে।

বিষয়টি আচ করতে পেয়ে স্বপন দৌড়ে পালিয়ে যায়। পরে সাজেদুরকে হাতুড়ি ও কাঠের বাটাম দিয়ে পেটানোর পাশাপাশি কিল-ঘুষি মারা হয়। এসময় তার চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে আসে। পরে তাকে উদ্ধার করে প্রথমে পাংশা উপজেলা কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। সেখানে শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

তিনি আরও জানান, বুধবার তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত ৮টার দিকে তিনি মারা যান। এ ঘটনায় দু’জনকে আটক করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

এ বিষয়ে পাংশা থানার ওসি মো. শাহাদাত হোসেন বলেন, স্বপনের সাথে হামলাকারী সন্ত্রাসীদের পূর্ব শত্রুতা ছিল। ঘটনাচক্রে সাজেদুর মারা যায়। এ ঘটনায় কোনো অভিযোগ না পেলেও দু’জনকে আটক করা হয়েছে বলে জানান তিনি।


মন্তব্য

এ বিভাগের আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ