একই সময়ে বিসিএস ও এসআইয়ের পরীক্ষা, বিপাকে চাকরিপ্রার্থীরা

টিডিসি রিপোর্ট

ফাইল ফটো

৪১তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষা ও পুলিশ বাহিনীর উপপরিদর্শক (এসআই–নিরস্ত্র) পদের পরীক্ষা পড়েছে একই সময়ে। আগামী ২৯ নভেম্বর থেকে ৪১তম বিসিএসের আবশ্যিক বিষয়ের লিখিত পরীক্ষা শুরু হবে, চলবে ৭ ডিসেম্বর পর্যন্ত। অন্যদিকে, ২৮ নভেম্বর এসআই পদের শারীরিক মাপ, কাগজপত্র যাচাইকরণসহ শারীরিক সক্ষমতা যাচাই পরীক্ষা শুরু হবে, চলবে ৮ ডিসেম্বর পর্যন্ত।

রবিবার (১০ অক্টোবর) পিএসসির ওয়েবসাইটে ৪১তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষার সূচি প্রকাশ করা হয়েছে।

এদিকে গত বৃহস্পতিবার (৭ অক্টোবর) এসআই নিয়োগে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়।

এই দুই গুরুত্বপূর্ণ নিয়োগ পরীক্ষা একই সময়ে পড়ায় বিপাকে পড়েছেন চাকরিপ্রার্থীরা। রুহুল আমিন নামের এক চাকরিপ্রার্থী জানান, আমার মত লাখো বেকারের স্বপ্নের জায়গা বিসিএস ও এসআই। দীর্ঘদিন পর এসআই নেওয়ার বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ হলো। এটার জন্য আলাদাভাবে প্রস্তুতি নিচ্ছিলাম। কিন্তু বিসিএসের সঙ্গে এ পরীক্ষা পড়ায় হতাশ হয়েছি। বিসিএসের জন্য পড়বো, না কি এসআই পরীক্ষার জন্য পড়বো, সিদ্ধান্ত নিতে পারছি না। আমাদের দিকটি বিবেচনা করে কর্তৃপক্ষের উচিত সূচি পরিবর্তন করা।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী চাকরিপ্রার্থী শফিকুল ইসলাম জানান, এসআইয়ের পরীক্ষার তারিখ ঘোষণার পর বিসিএসের লিখিত পরীক্ষার তারিখ ঘোষণ করা হয়েছে। এক সপ্তাহ পিছিয়ে বিসিএসের লিখিত পরীক্ষার সূচি দিলে আমাদের আর কোন সমস্যায় পড়তে হতো না। আমরা যারা বিসিএসের লিখিত পরীক্ষা দেব, তারা কি এসআইয়ের পরীক্ষা দিতে পারব না। আশা করি কতৃপক্ষ বিষয়টি ভেবে দেখবেন।

এ ব্যাপরে জানতে চাইলে পিএসসি চেয়ারম্যান সোহরাব হোসাইন জানান, বিসিএস একটি গুরুত্বপূর্ণ পরীক্ষা, প্রার্থীরা অনেক দিন ধরে এর জন্য অপেক্ষা করে আছেন। এসআই পদের পরীক্ষা পিছিয়ে দিলে প্রার্থীদের উপকার হবে। তিনি আশা প্রকাশ করেন, পুলিশের পরীক্ষা পেছাবে।

এ বিষয় পুলিশ সদর দপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিদর্শক এআইজি (মাল্টিমিডিয়া অ্যান্ড পাবলিসিটি) মো. কামরুজ্জামান জানান, পরীক্ষা পেছানোর বিষয়ে উচ্চপর্যায়ে আলোচনা চলছে। শিগগিরই সিদ্ধান্ত হবে বলে আশা করি।