পরীক্ষা হলে জালিয়াতি, মিলল ৬টি জাতীয় পরিচয়পত্র

ঢাকা
৬টি জাতীয় পরিচয়পত্র   © সংগৃহীত

জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (জাককানইবি) গুচ্ছভুক্ত ২২টি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতির অভিযোগে এক পরীক্ষার্থীকে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় পরে তাকে পুলিশে সোপর্দ করা হয়। 

শনিবার (১৩ আগস্ট) জাককানইবির সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ৬০১ নম্বর কক্ষে এ ঘটনা ঘটে। 

আটক পরীক্ষার্থীর নাম মাহবুব হাসান। তিনি শেরপুরের ঝিনাইগাতী উপজেলার ধানশাই ইউনিয়নের ছোট মালিঝিকান্দা গ্রামের আব্দুর রহিমের ছেলে। 

জানা গেছে, ‘ভর্তি পরীক্ষা চলাকালীন কর্তব্যরত নৃবিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক কে এম মাহমুদুল হক রেজিস্ট্রেশন কার্ড এবং প্রবেশপত্রের সঙ্গে ছবির অমিল দেখে ওই পরীক্ষার্থীকে প্রক্টরিয়াল বডির হাতে তুলে দেন। পরে প্রক্টরিয়াল বডি ভ্রাম্যমাণ আদালত গঠন করে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন। জিজ্ঞাসাবাদের মাধ্যমে জানা যায়, তার কাছে ভিন্ন রকমের ৬টি জাতীয় পরিচয়পত্র পাওয়া যায়। এছাড়া একটি ভুয়া অনার্স পাশের সার্টিফিকেটও পাওয়া গেছে।

আটক হওয়া শিক্ষার্থী নিজেকে কেন্দ্রীয় ওলামা লীগের ভাইস প্রেসিডেন্ট আব্দুর রহীম পীর এর সন্তান দাবী করেন। যার সত্যতা নিশ্চিত করেছে ওলামা লীগ নেতা নিজেই।  

আরও পড়ুন : ‘বেহেশতে আছি’র ব্যাখ্যা দিলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

এ ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. সৌমিত্র শেখর জানান, ‘আমাদের এখানে জিরো টলারেন্স। কোনো ফাঁক-ফোকর দিয়ে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করার সুযোগ নেই। আটক শিক্ষার্থী বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমাণ আদালত যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।’ 

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর উজ্জ্বল কুমার প্রধান জানান, ‘তার কাছে সন্দেহজনক অনেক কিছু পাওয়া গেছে, আমরা তার লিখিত জবানবন্দি এবং প্রয়োজনীয় তথ্যসহ পরামর্শে পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে।’


x

সর্বশেষ সংবাদ