‘ভর্তি পরীক্ষা পাস-ফেলের বিষয় না’

অধ্যাপক ড. কামরুল হাসান মামুন
অধ্যাপক ড. কামরুল হাসান মামুন  © সংগৃহীত
"ভর্তি পরীক্ষায় ঢাবির ‘ক’ ইউনিটে ৮৯.৬১ শতাংশই ফেল"
 
এই ধরনের সংবাদ শিরোনামই প্রমাণ করে বাংলাদেশের সাংবাদিকতা পেশায় যারা আসেন তাদের ঘিলু কোথায়। এবার মোট পরীক্ষা দিয়েছে ১ লাখ ১০ হাজার ৩৭৪ জন। তার মধ্যে পাস করেছেন মাত্র ১১ হাজার ৪৬৬ জন শিক্ষার্থী। তবে এই পাশ সেই পাশ না। এখানে বলা হয় না যে এত পার্সেন্ট পেলে পাশ। যদি ২০ লাখ ছাত্র পরীক্ষা দিত তাহলে কি ২ লাখ ২০ হাজার ছাত্র পাশ করত? তাহলেও আনুমানিক ১১ হাজার ৪৬৬ জন শিক্ষার্থীই পাশ করত। এখন যদি ২০ লাখ ছাত্র পরীক্ষা দিত তাহলেতো পাশের শতাংশ miserably কমে যেত।
 
একটি ভর্তি পরীক্ষায় পাশ ফেলের বিষয় না। এইটা একটা প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষা। উপর থেকে মোট আনুমানিক ১১ হাজারকে রাখা হয়। মোট কতটি আসন আছে সেটার উপর ভিত্তি করে আনুমানিক সংখ্যক ছাত্রের ফলাফল দেওয়া হয়। যাদের পাশ দেখানো হয় তাদের সবাই ভর্তি হতে পারবে না। এই সহজ বিষয়টা বুঝতে এত সমস্যা কেন?
 
[ঢাবি অধ্যাপক ড. কামরুল হাসান মামুনের ফেসবুক থেকে]

x